1. admin@amarsongbad24.com : admin :
  2. zihadononto15@gmail.com : Zihad Hokkani : Zihad Hokkani
বিস্কুট খাওয়ার লোভে শিশুকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ, হাসপাতালে ভর্তি - AMAR SONGBAD 24
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০২:২১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
এক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহমুদ মিয়া অপর বিদ্যালয়ে সভাপতি, নানা অনিয়মের অভিযোগ! গাইবান্ধায় প্রকৌশলী কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে বিশুদ্ধ ঠান্ডা খাবার স্যালাইন পানি বিতরণ জুয়া বসানোর অভিযোগে সাদুল্লাপুরে ইউপি মেম্বার আল-আমিনের বিরুদ্ধে মামলা! (ভিডিও ভাইরাল) সুন্দরগঞ্জের চরাঞ্চলে কর্মোক্ষম মানুষের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী  বিতরণ ভিজিএফের চাল ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ সাংবাদিককে লাঞ্চিত করলেন মেয়র সুন্দরগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবে আলোচনা দোয়া ও ইফতার  সুন্দরগঞ্জে বারো জুয়াড়িসহ গ্রেফতার-১৩ সুন্দরগঞ্জে জমি নিয়ে সংঘর্ষে নিহত এক, গ্রেফতার দুই সুন্দরগঞ্জে স্কুল মাঠে ঝড়ে ভেঙে পড়া গাছ খেলাধুলা বন্ধ সুন্দরগঞ্জে রাস্তায় বাঁশের বেড়া ২৩ দিন ধরে অবরুদ্ধ ৪ পরিবার

বিস্কুট খাওয়ার লোভে শিশুকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ, হাসপাতালে ভর্তি

গাইবান্ধা প্রতিনিধি :
  • প্রকাশের সময়: বুধবার, ১৫ মার্চ, ২০২৩
  • ২৮


গাইবান্ধার সদর উপজেলায় সাত বছরের এক শিশুকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। বিস্কুট খাওয়ার লোভ দেখিয়ে দুই যুবক শিশুটিকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ স্বজনদের। অসুস্থ শিশুটি বর্তমানে সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এ ঘটনায় বুধবার (১৫ মার্চ) বিকেলে শিশুটির বাবা বাদি হয়ে সদর থানায় একটি লিখিত এজাহার দায়ের করেন। এতে প্রতিবেশি সহোদর দুই ভাইসহ তিনজনকে আসামি করা হয়।

অভিযুক্তরা হলেন, ফুলছড়ি উপজেলার সৈয়দপুরঘাট গ্রামের হেলাল খন্দকারের ছেলে মনি মিয়া (২২) ও আকাশ মিয়া (১৮) এবং সদর উপজেলার দক্ষিণ গিদারি (ফলিয়ার ঘোপ) গ্রামের তারা খন্দকারের ছেলে মশিউর খন্দকার (২০)।

পুলিশ ও মামলার এজাহার সুত্রে জানা গেছে, পঞ্চম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত শিশুটিকে আগে থেকে উক্ত্যক্ত করে আসছিল প্রতিবেশি আকাশ ও মশিউর। গত ১৩ মার্চ বিকেলে শিশুটি বাড়িতে একাই খেলছিলো। এ সময় সুযোগ বুঝে আকাশ ও মশিউর শিশুটিকে বিস্কুট খাওয়ার লোভ দেখিয়ে বাড়ির পাশে নিয়ে যায়। এরপর শিশুটিকে একটি ভুট্টা ক্ষেতে নিয়ে গিয়ে তারা দুজনে ধর্ষণ করে। এসময় শিশুটি চিৎকার করলে মুখ চেপে ধরা হয়। এক পর্যায়ে শিশুটির গোংরানির শব্দ শুনে আশপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে। ঘটনার পরপরই অভিযুক্ত দুই যুবক পালিয়ে যায়।

হাসপাতালে থাকা ভুক্তভোগী শিশুর বাবা বলেন, বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণ করে আকাশ ও মশিউর। শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়লে অভিযুক্তরা তাকে ফেলে পালিয়ে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার পর অভিযুক্ত আকাশের ভাই মনি মিয়া বিভিন্নভাবে হুমকি-ধামকি দিচ্ছেন। ঘটনা কাউকে না জানানো এবং মামলা না করতেও চাপ দিচ্ছেন তিনি। অভিযুক্তরা এলাকায় প্রভাবশালী এবং মাদকসহ বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত।

শিশুটির বাবা আরও জানান, ধর্ষণের অভিযোগে দুইজন ও ঘটনা ধামাচাপাসহ হুমকির ঘটনায় তিনজনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছি। কিন্তু পুলিশ এখনো কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এতে পরিবার নিয়ে আতঙ্ক ও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলেও দাবি করেন তিনি।।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদুর রহমান বলেন, ওই শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ আমরা পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়াসহ গ্রেফতারে কাজ করছে পুলিশ।

এদিকে, এ ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্তরা পলাতক থাকায় তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এমনকি অভিযোগের বিষয়ে জানতে চেষ্টা করা হলেও তাদের স্বজনদের কেউ মুখ খোলেনি।

আমার সংবাদ২৪.কম

More News Of This Category
All Rights Reserved © 2023 Amar Songbad
Developed By :: Sky Host BD