1. admin@amarsongbad24.com : admin :
  2. zihadononto15@gmail.com : Zihad Hokkani : Zihad Hokkani
গাইবান্ধায় আমের গুটি আসতে শুরু করেছে - AMAR SONGBAD 24
সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০১:১১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
পলাশবাড়ীতে খাদ্য গুদামে চাল-গম আত্মসাতের ঘটনায় শ্রমিকদের সংবাদ সম্মেলন পাউবোর সরকারি গাড়ি চাপায় বৃদ্ধা নিহতের ঘটনায় গাইবান্ধা সদর থানায় মামলা, চালক আটক এক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহমুদ মিয়া অপর বিদ্যালয়ে সভাপতি, নানা অনিয়মের অভিযোগ! গাইবান্ধায় প্রকৌশলী কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে বিশুদ্ধ ঠান্ডা খাবার স্যালাইন পানি বিতরণ জুয়া বসানোর অভিযোগে সাদুল্লাপুরে ইউপি মেম্বার আল-আমিনের বিরুদ্ধে মামলা! (ভিডিও ভাইরাল) সুন্দরগঞ্জের চরাঞ্চলে কর্মোক্ষম মানুষের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী  বিতরণ ভিজিএফের চাল ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ সাংবাদিককে লাঞ্চিত করলেন মেয়র সুন্দরগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবে আলোচনা দোয়া ও ইফতার  সুন্দরগঞ্জে বারো জুয়াড়িসহ গ্রেফতার-১৩ সুন্দরগঞ্জে জমি নিয়ে সংঘর্ষে নিহত এক, গ্রেফতার দুই

গাইবান্ধায় আমের গুটি আসতে শুরু করেছে

জিহাদ হক্কানী/রিফাতুন্নবী রিফাতঃ
  • প্রকাশের সময়: শুক্রবার, ১০ মার্চ, ২০২৩
  • ৫৯

গাইবান্ধা জেলায় আম গাছে মুকুল থেকে ‘গুটি’ আসতে শুরু করেছে। গাছে গাছে ‘আমের গুটি’ দেখে ভালো ফলনের আশা করছেন বাগান মালিক ও ব্যবসায়ীরা।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, জেলার ৯৫ ভাগ গাছে মুকুল আসে। মুকুল থেকে বের হওয়া গুটি টিকিয়ে রাখতে পরিচর্যায় সর্বচ্চ চেষ্ঠা করছেন চাষিরা। কৃষকরা বলছেন আবহাওয়া ভালো থাকলে বাম্পার ফলন হবে এবছর।

অন্যদিকে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আমের মৌসুমে শুরুতেই বৃষ্টি হলে ফলনের জন্য উপকারী। গাছের গোড়ায় টানা পানি ঢেলেও যে লাভ না হতো, তার চেয়েও বেশি লাভ হয়েছে। বৃষ্টির পানিতে ফলন ভালো হবে।

মাঝে-মধ্যে হওয়া বৃষ্টিতে ফলন ভালো হয় বলে জানান গাইবান্ধা জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক কৃষিবিদ বেলাল উদ্দিন।

তিনি বলেন, মৌসুমের শুরুতে বৃষ্টিতে আমের গাছের পাতা থেকে ধূলা-ময়লা ধুয়ে গেছে। এতে পাতার মাধ্যমে মুকুলগুলো বেশি পরিমাণে সূর্যালোক থেকে খাদ্যগ্রহণ করছে। এতে গুটির ঝরেপড়া যেমন রোধ হবে, তেমনি আকারও বড় হবে। তাছাড়া বৃষ্টির পর দিন পর্যাপ্ত রোদ হওয়ায় মুকুলে কীটপতঙ্গ মারা যাবে।

কৃষি বিভাগ ও আম চাষিরা বলছেন, বড় ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে আমের বাম্পার ফলন হবে এবছর। মুকুল আসার আগে থেকে গাছের পরিচর্যা করছেন বাগান মালিক ও চাষিরা। কৃষি বিভাগের পরামর্শ অনুযায়ী বিভিন্ন ধরনের কীটনাশকও প্রয়োগ করছেন তারা।

গাইবান্ধায় বাণিজ্যিক ভাবে প্রায় সব জাতের আমের উৎপাদন হয়। লাভজনক হওয়ায় প্রতি বছর আমের আবাদ বাড়ছে। ল্যাংড়া, আম্রপালি, ফজলি,ক্ষীরশাপাতি, রাজভোগ ও গোপালভোগসহ বিভিন্ন জাতের আমের বাগান গড়ে উঠেছে। এখানকার আম দেশের বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করা হয় থাকে। অনেক সময় চাহিদা মাফিক বিদেশে ও রপ্তানি হয়।

এবিষয়ে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সামসুন্নাহার ইয়াছমিন সাথি আমার সংবাদ ২৪.কম কে জানান, আম বাগান পরিচর্যা বিষয়ক লিফলেট চাষিদের দেওয়া হয়েছে। মুকুল থেকে আম পাড়া পর্যন্ত নির্দেশনা লিফলেটে রয়েছে। কেমিকেলমুক্ত আম উৎপাদনে প্রতি বছরের মতো এবারও চাষিদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

More News Of This Category
All Rights Reserved © 2023 Amar Songbad
Developed By :: Sky Host BD